অটো চালককে হত্যা করে পালানোর পথে আটক

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পুলিশ শশুর-জামাই গ্রেফতার করে সৈয়দপুরে অটো চালক সুমনকে হত্যা করে অটোবাইক ছিনতাই করে পালানোর পথে। গ্রেফতারকৃত শশুর-জামাইকে সৈয়দপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে, ৩০ জুন রাতে ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়কে টহল কালে বীরগঞ্জ থানার এসআই আল আমিন উপজেলার সাতোর ইউনিয়নের দলুয়াহাট এলাকায় ঠাকুরগাঁওগামী একটি অটো বাইককে দেখে সন্দেহ হলে তাদেরকে অটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা সৈয়দপুর থানার সোনাখুলি গ্রামের মৃত জয়বারের ছেলে রবিউল ইসলাম (২৫) ও আব্দুল হামিদের ছেলে আনারুল ইসলাম (১৮) চালক ও যাত্রী মামা শশুর ও ভাগ্নি জামাই পরিচয় দেয়।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদে ভুল তথ্য দিচ্ছে মনে হলে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। থানায় জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করে বলেন, নিলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার উত্তর সোনাখুলি গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সুমন ইসলাম (১৯) অটো বাইক মালিক তাকে টাইগারের বোতলে অনেকগুলো ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে অজ্ঞান করে শ্বাস রুদ্ধ করে মৃত্যু নিশ্চিত করে চিকলী নদীর কুমিরঘাট ব্রীজ হতে পানিতে ফেলে দিয়ে অটো বাইক ছিনতাই করে ঠাকুরগাও পালিয়ে যাচ্ছিলো। তাদের কাছে অটো বাইক মালিক নিহত সুমনের মোবাইল ফোন ও মানি ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে। বীরগঞ্জ থানা পুলিশ ১ জুলাই রাতে সৈয়দপুর থানা পুলিশের কাছে ধৃত শশুর-জামাইকে হস্তান্তর করেছে।

সৈয়দপুর থানার এসআই আব্দুস সোবহান জানান, হত্যা সন্দেহ ভাজন ও ছিনতাইকারী শশুর-জামাইয়ের সহযোগিতা নিয়ে অটো বাইক মলিক সুমনের লাশ উদ্ধার করে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।