মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ইট দিয়ে হত্যা

কুড়িগ্রাম ৫ নভেম্বর : কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নে একটি নূরানী মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থীকে ইট দিয়ে আঘাত করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার সকালে উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের পুটিমারী বহরের হাট এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রেজাউল ইসলাম নামে একজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। চিলমারী থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


নিহত মাদ্রাসা ছাত্রের নাম শাকিল (৮)। সে একই ইউনিয়নের হাটিথানা বাঁধ রাস্তা এলাকার আব্দুল কাদের- কহিনূর বেগম দম্পতির ছেলে। সে একই এলাকার আলহাজ্ব মরহুম রজব উদ্দিন নূরানী ও হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র।


অভিযুক্ত রেজাউল ইসলাম পুটিমারী বহরের ভিটা গ্রামের মৃত শামসুল হকের ছেলে। সে দীর্ঘ ৮/১০ বছর ধরে অনেকটা মানসিক ভারসাম্যহীন জীবন যাপন করছে বলে জানায় এলাকাবাসী।


স্থানীয়রা জানায়, প্রতিদিনের মত সোমবার সকালে মাদ্রাসায় যায় শাকিল। সকাল ৯ টার দিকে মাদ্রাসার শ্রেণিকক্ষ থেকে বের হয় শাকিল। ওই সময় মাদ্রাসার সামন দিয়ে রেজাউল যাচ্ছিল। শাকিল রেজাউলকে বিরক্ত করার চেষ্টা করলে রেজাউল হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে শাকিলকে ধরে আছাড় মারে। পরে পাশে থাকা একটি ইট দিয়ে শাকিলের মাথায় সজোরে আঘাত করে রেজাউল। স্থানীয়রা ছুটে এসে রেজাউলকে আটক করে এবং শাকিলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। তবে হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক শাকিলকে মৃত ঘোষণা করেন।


চিলমারী থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, ময়না তদন্তের জন্য লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।