ইডেনে নেত্রীদের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ

ঢাকা ৯ নভেম্বর : ইডেন মহিলা কলেজে ছাত্রলীগ নেত্রীদের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে হয়েছে। আজ শনিবার (৯ অক্টোবর) কলেজের শেখ ফজিলাতুন্নেছা হলে বহিরাগত থাকা নিয়ে এ সংঘর্ষ হয়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

জানা যায়, ইডেন মহিলা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবা নাসরিন রুপা বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হলে ২১৯ নং কক্ষে নাবিলা নামের একজন বহিরাগত প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে টাকার বিনিময়ে রাখতেন। তাকে রাখাকে কেন্দ্র করে হলে অন্য নেত্রীদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রুপা তার অনুসারীদের নিয়ে অন্য নেত্রীদের ওপর হামলা করেন।

এসময় সাবিকুন্নাহার তামান্নার হাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেন রুপা। আহত তামান্নাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আহত সাবিকুন্নাহার তামান্না ইডেন মহিলা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সদস্য। তার ওপর হামলাকারী মাহবুবা নাসরিন রুপা একই কলেজের শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

মাহবুবা নাসরিন বলেন, ‘আমি কারো ওপর হামলা করিনি। ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আনজুম আরা অনু আমার সমর্থকদের প্রত্যেককে হলে গিয়ে মারধর করেছে। পরে রাজিয়া হলের ২০৮ নং কক্ষে গিয়ে আমার একটি আইফোন ও ১৭ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে সে।

বহিরাগত থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নাবিলা ইডেন কলেজ থেকে ডিগ্রি পাস করা। সে আমার এলাকার মেয়ে। ’ এ বিষয়ে আনজুমান আরা অনু বলেন, ‘সংঘর্ষের সময় আমি ক্যাম্পাসে ছিলাম না। আমি পরে এসেছি। আমার বিরুদ্ধে রুপার অভিযোগ বানোয়াট।

লালবাগ থানার ওসি একেএম আশরাফ উদ্দিন বলেন, ‘আমরা শুনেছি হলে মেয়েদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। কয়েকজন আহত হয়েছেন।  ঘটনার পর সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।