সিটি নির্বাচন ৩০ জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবে: সিইসি

ঢাকা ১২ জানুয়ারি : রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন আগামী ৩০ জানুয়ারিতেই অনুষ্ঠিত হবে, পেছানোর কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রবিবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে এক নির্বাচন কমিশনার জানান, সরস্বতী পূজার কারণে নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আজ বৈঠকে বসে ইসি।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য ৩০ জানুয়ারি নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি হিন্দু সম্প্রদায়ের সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। দেশের সব বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচন উপলক্ষে যেহেতু শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হয় বিধায় এটি সাংঘর্ষিক।

এদিকে, আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় ঢাকার ২ সিটির নির্বাচন পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে করা রিট নতুন বেঞ্চে উপস্থাপন করা হয়েছে। আবেদনটি বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চে উপস্থাপন করা হয়।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী অশোক ঘোষ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটির্নি জেনারেল নূর উস সাদিক।

পরে অশোক ঘোষ জানান, রোববারের (১২ জানুয়ারি) কার্যতালিকায় বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে রিট আবেদনটি ৩৮ নম্বর ক্রমিকে রয়েছে। কিন্তু বিষয়টি এখতিয়ার বর্হিভূত হওয়ায় আদালত অন্য বেঞ্চে নিতে বলেন। এরপর বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চে উপস্থাপন করা হয়। আদালত বলেছেন সোমবার (১৩ জানুয়ারি) এটি কার্যতালিকায় আসবে এবং শুনানি হবে।

ডেপুটি অ্যাটির্নি জেনারেল নূর উস সাদিক বলেন, আবেদনটির ওপর সোমবার দুপুর ২টায় শুনানি হবে। দেশের সব শিক্ষাকেন্দ্র সরস্বতী পূজা হয়। নির্বাচন উপলক্ষে যেহেতু শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হবে বিধায় এটি সাংঘর্ষিক বলে জানান আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ।

তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় পঞ্চমী শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিমা বিসর্জন দেয়া যায় না। তাই নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করে ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে নির্ধারণের জন্য হাইকোর্টে রিট (নম্বর-১৩১/২০২০) করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।