কৃষকদের সুখবর দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক

কৃষি বার্তা ২৭ এপ্রিল ২০২০ : ”কৃষকদের সুখবর দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কৃষিখাতে ঋণে সুদের হার কমানোর নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি। এখন থেকে গ্রাহক পর্যায়ে ৪ শতাংশ সুদ আদায় করবে ব্যাংকগুলো।”

”সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করে। এতে বলা হয়েছে, চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত এ নির্দেশনা বলবৎ থাকবে।”

”বর্তমানে নয় শতাংশ হারে সুদ আদায় করে ব্যাংকগুলো। নতুন এ নির্দেশনা অনুযায়ী, অবশিষ্ট ৫ শতাংশ সুদ কেন্দ্রীয় ব্যাংক ক্ষতি বাবদ ভর্তুকি হিসেবে সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে দেবে। ”

”দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের কাছে পাঠানো নির্দেশনায় বলা হয়, নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আগামীতে খাদ্যের উৎপাদন ও খাদ্য সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে কৃষি খাতে শস্য ও ফসল চাষের জন্য কৃষক পর্যায়ে স্বল্প সুদে কৃষি ঋণ সরবরাহ করা অত্যাবশ্যক।”

”উল্লেখ্য, আমদানি বিকল্প ফসলসমূহ (ডাল, তেলবীজ, মসলা জাতীয় ফসল ও ভুট্টা)  চাষ করার জন্য কৃষক পর্যায়ে ৪ শতাংশ রেয়াতি সুদ হারে কৃষি ঋণ বিতরণের জন্য তফসিলি ব্যাংকসমূহের প্রতি নির্দেশনা রয়েছে।”

”এ অবস্থায় আমদানি বিকল্প ফসলসমূহের পাশাপাশি কৃষি ও পল্লীঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচিতে উল্লিখিত ধান, গমসহ সব দানা শস্য, অর্থকরী ফসল, শাক-সবজি ও কন্দাল ফসল  চাষের জন্যও সুদ-ক্ষতি সুবিধার আওতায় কৃষক পর্যায়ে প্রণোদনা হিসেবে ৪ শতাংশ রেয়াতি সুদ হারে কৃষি ঋণ বিতরণ করার নির্দেশনা প্রদান করা হলো। বিতরণকৃত ঋণসমূহের বিপরীতে ব্যাংকসমূহ বাংলাদেশ ব্যাংক হতে প্রকৃত সুদ-ক্ষতি বাবদ ৫ শতাংশ হারে সুদ-ক্ষতি পুনর্ভরণ সুবিধা প্রাপ্য হবে।”

”নির্দেশনায় বলা হয়েছে, এ স্কীমের নাম হবে ‘নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবিলায় শস্য ও ফসল খাতে ৪ শতাংশ রেয়াতি সুদ হারে কৃষি ঋণ প্রদান’। ”

”এর আওতায় কৃষক পর্যায়ে সুদের হার হবে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ। এ সুদ হার  চলমান এবং নতুন ঋণগ্রহীতা, উভয় ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে। তবে ৩০ জুন ২০২১ এর পর  চলমান ঋণসমূহের অবশিষ্ট মেয়াদের জন্য স্বাভাবিক সুদহার প্রযোজ্য হবে।”

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।