পিআইওকে মারধর; ভাইস চেয়ারম্যান বরখাস্ত

নবীন

টাঙ্গাইল ২৮ মে ২০২০ : ‘টাঙ্গাইলে অফিস কক্ষে ঢুকে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে মারধরের অভিযোগে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হুদা নবীনকে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়’। ‘স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনকে চিঠি দিয়ে এই বরখাস্তের কথা জানায়’।

‘নাজমুল হুদা নবীনের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) একেএম মমিনুল হককে গত (২১ মে) তার অফিস কক্ষে ঢুকে মারধর করার অভিযোগ রয়েছে’। ‘এ ব্যাপারে পিআইও মমিনুল নিজে বাদি হয়ে গত (২২ মে) টাঙ্গাইল সদর থানায় নবীনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন’। ‘মামলা দায়েরের পর নবীন গা-ঢাকা দিয়েছেন’।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম নবীনের বরখাস্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ‘স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) তাকে চিঠি দিয়ে তাকে বহিস্কারের কথা জানানো হয়েছে’।

‘মামলায় পিআইও অভিযোগ করেন ঘটনার দিন গত (২১ মে) বিকাল ৫টার দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে তার অফিসকক্ষে অবস্থানকালে ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা ও তপু নামক তার অপর এক সহযোগিসহ আরও ৪/৫ জন ওই কক্ষে প্রবেশ করে। তারা সরকারি কাজে বাধাদান করে অবৈধভাবে ত্রাণের কিছু স্লিপ তাকে (পিআইও) দেন। তখন পিআইও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়া অবৈধভাবে ত্রাণ দিতে অস্বীকার করেন। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে অফিসের দরজা বন্ধ করে দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এক পর্যায়ে তারা পিআইওকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী কিল ঘুষি দেন। এতে নিলা ফুলা জখম হয়। তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা ভয়ভীত দেখিয়ে ও হুমকি দিয়ে চলে যান’।

‘পরে পিআইও মমিনুল হক টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করেন’।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।