চাঁদা না পেয়ে তিন আ’লীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা

কালিহাতীর সাংসদকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে চাঁদা না পেয়ে তিন আওয়ামী লীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। মঙ্গলবার(১০ জুলাই) সকালে উপজেলা সদরের সাতুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ ঘটনা ঘটে। প্রতিবাদে ব্যবসায়ী-শ্রমিকরা কলিহাতী বাসস্ট্যান্ডে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। সমাবেশে স্থানীয় সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারিকে কালিহাতীতে অবাঞ্চিত ঘোষণা এবং বুধবার(১১ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত অর্ধদিবস উপজেলা সদরে হরতাল আহ্বান করা হয়।

জানা যায়, সাতুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি পরিত্যাক্ত ভবন নিলামে বিক্রি করা হয়েছে। ক্রয়কৃত ভবনটি ঠিকাদার ভাঙতে গেলে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী শান্ত মিয়া(২০), রুমেল(২০), মিনহাজ(২২), আজিজুল(২১), আ. আলীম(২৩) ও স্বাধীন(২৮) সহ ১০-১২জন সন্ত্রাসী ঠিকাদারের কাছে চাঁদা দাবি করে। ঠিকাদার চাঁদা না দেয়ায় ভবনটিতে তালা লাগিয়ে দেয়। পরে বিদ্যালয়ের সভাপতি শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলাম আমিনের উপস্থিতিতে ভবনটি ভাঙতে গেলে শান্ত ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ও সাতুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম আমিন, কালিহাতী পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম রতন ও পৌর শ্রমিক লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাইসুল ইসলাম রাসেল গুরুতর আহত হন। আহতদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে কালিহাতী পৌর এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। সন্ত্রাসীদের বিচারের দাবিতে বাজার ও বাসস্ট্যান্ডের সকল দোকানপাট বন্ধ রেখে ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক মহাসড়কের কালিহাতী বাসস্ট্যান্ডে অবস্থান নেয়। ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ বিক্ষোভ কর্মসূচিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা যোগ দেন। তারা টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক মহাসড়কের কালিহাতী বাসস্ট্যান্ডে টায়ার জ্বালিয়ে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। অবরোধে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে ঘাটাইল পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়।
সমাবেশ থেকে বিক্ষোভকারীরা স্থানীয় সাংসদ হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারির মদদপুষ্ট ‘শান্ত বাহিনী’কে দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। একই সাথে সাংসদ হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারিকে কালিহাতীতে অবাঞ্চিত ঘোষণা, কালিহাতী থানার পরিদর্শক(ওসি) মীর মোশারফ হোসেন ও সেকেন্ড অফিসার এসআই মেহেদী হাসানকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এবিষয়ে কালিহাতী শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক শফিকুল আলম মিন্টু সমাবেশে বলেন, সন্ত্রাসী শান্ত সাংসদ সোহেল হাজারির মদদপুষ্ট। সাংসদের মদদেই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। আমরা হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি এবং স্থানীয় সাংসদকে কালিহাতীতে অবাঞ্চিত ঘোষণা করছি।

এ বিষয়ে সাতুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনা নাসরিন বলেন, বিদ্যালয়ের সভাপতি আমিনুল ইসলাম আমিনের উপস্থিতিতে নিলামকৃত ঘরটি ভাঙতে গেলে ১০-১২জনের একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

অপরদিকে, কয়েকেদিন আগে সন্ত্রাসী শান্ত কালিহাতী পৌর এলাকার মোশারফ হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেন শাফিকে উপজেলা পরিষদ চত্বরে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয় নি। পরে শাফির পিতা আদালতে মামলা দায়ের করলেও পুলিশ সন্ত্রাসী শান্তকে আটক করেনি। উপজেলা আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটির সভায় সন্ত্রাসী শান্তকে আটক করার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করা হয়। কিন্তু পুলিশ তাকে আটক করেনি।

বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত হয়ে দোষীদের শাস্তির আশ্বাস প্রদান করেন, সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মনিরুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুছা. শাহীনা আক্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী বিকম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ তোতা, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান মনিরসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী। নেতারা পুলিশের গাফিলতির অভিযোগ তুলে বক্তব্য প্রদান করেন। সেই সাথে বুধবার(১১ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত হরতাল আহ্বান করেন। এবং দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও শাস্তি না হলে আগামিতে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন।

বর্তমানে কালিহাতী উপজেলা সদরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।