কুড়িগ্রামে ১ জনের যাবৎজীবন কারাদণ্ড

কুড়িগ্রামে মহন্ত রবি দাস নামের ৪র্থ শ্রেনীর এক শিশু হত্যার দায়ে তার কাকী মা বেলী রানী দাসের যাবৎজীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ৬ মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুড়িগ্রাম দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো: আখতার-উল-আলম এ রায় প্রদান করেন।

আসামী বেলী রানী দাস এর বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় দি-পেনাল কোডের-৩০২ ধারায় এ রায় দেয়া হয়। এসময় আসামী পক্ষের আইন জীবি ছিলেন এডভোকেট মুহা: ফখরুল ইসলাম এবং রাষ্ট্র পক্ষের আইন জীবি ছিলেন পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট আব্রাহাম লিংকন।

মামলার বিবরনে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২০ এপ্রিল মহন্ত রবি দাস (১২) শহরের গোরস্থানপাড়ার বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরে তার পরিবারের লোকজন জানতে পায় তার কাকী মা বেলী রানী দাস মহন্ত রবি দাসকে সাথে করে নিয়ে গেছে। কিন্তু সেদিনই রাত ১১ টার দিকে বেলী রানী দাস বাড়িতে ফিরে আসলে সে মহন্ত রবি দাসকে সাথে নিয়ে যাওয়ার কথা অস্বীকার করে।

পরের দিন সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পার্শ্ববর্তী হরিকেশ গ্রামের একটি ধানক্ষেত থেকে গলায় ও শরীরে ক্ষত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়।
সেদিনই বাদী হয়ে কুড়িগ্রাম সদর থানায় বেলী রানী দাসকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে মহন্ত রবি দাসের বড় ভাই পরেশ রবি দাস।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।