ছাত্রদল নেতা মিলন পুলিশ হেফাজতে মারা যায়নি: আইজিপি

ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন মিলন পুলিশের হেফাজতে বা পুলিশের নির্যাতনে মারা যাননি বলে জানিয়েছেন পুলিশ প্রধান জাবেদ পাটোয়ারি।

আইজিপি বলেন, মিলন মারা গেছে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে। পুলিশ হেফাজতে মারা গেছে- এমন দাবির সঙ্গে ঘটনাটির কোনো মিল নেই।

বৃহস্পতিবার খুলনায় এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক।

গত ৬ মার্চ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে গ্রেপ্তার হন ঢাকা উত্তর মহানগর ছাত্রদলের সহসভাপতি মিলন। এরপর একটি মামলায় রিমান্ড শেষে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। গত ১২ মার্চ কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতাল পাঠানো হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিএনপির অভিযোগ, এই মৃত্যু কোনো সাধারণ ঘটনা নয়। পুলিশ নির্যাতন করে মিলনকে হত্যা করেছে। আগামী রবিবার সারাদেশে বিএনপি বিক্ষোভের ডাকও দিয়েছে।

অবশ্য মিলনের দেহে আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসক সোহেল মাহমুদ।

আইজিপি বলেন, পুলিশ হেফাজতে যদি কেউ মারা যায়, আইন ও বিধিতে কি ধরনের তদন্ত হবে তা বলা আছে। এখানে যার কথা বলা হচ্ছে, আমার জানামতে- তার মৃত্যু হয়েছে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে।’

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে আইজিপি বলেন, ‘মাদক ও জঙ্গিবাদ আমাদের প্রধান দুটি সামাজিক সমস্যা। এই সমস্যাকে সামাজিকভাবে মোকাবিলা করতে হবে।’

‘একটি সমাজকে মাদকমুক্ত করতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষের অংশগ্রহণ দরকার। পুলিশ শুধু আইনি বিষয়টা দেখতে পারে, কিন্তু সমাজকে মাদকমুক্ত করতে তার স্কুল, পরিবার, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সবার অংশগ্রহণ প্রয়োজন। এজন্য মাদকমুক্ত করতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার।’

এর আগে পুলিশ ও জনগণের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনতে খুলানায় ৪৫টি বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পুলিশের মহাপরিদর্শক। এরপর তিনি মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী সুধী সমাবেশ প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন।

বেলুন উড়িয়ে বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন।

সুধী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. হুমায়ুন কবীর।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।