বান্দরবান প্রেসক্লাবের পুনমিলন ও বর্ষা বন্দনা

বান্দরবান প্রেসক্লাবের উদ্যোগে জেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকদের নিয়ে ঈদ পুনমিলন ও বর্ষা বন্দনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের হিলটপ রেস্ট হাউস ঝাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই ঈদ পুর্নমিলন ও বর্ষা বন্দনা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

অনুষ্টানে ৬৯পদাতিক ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ যুবায়ের সালেহীন পিএসসি, বিজিবির বান্দরবান সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল ইকবাল হোসেন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: কামরুজ্জামান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্র্তা মো: গোলাম ছরোয়ার, সিভিল সার্জন ডা: অংসুই প্রু মার্মা, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক মো:আব্দুুল আজিজ,পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাস, রেডক্রিসেন্ট বান্দরবান ইউনিটের সেক্রেটারি একেএম জাহাঙ্গীর, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মো: ইয়াছির আরাফাত, প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম সুমন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি সহধর্মিনী মেহ্লাপ্রু, বান্দরবান ডনবস্কো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সীমা দাশ, বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবীর সহধর্মিনী কামরুননেছা খানম বেবীসহ বান্দরবানে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, সংবাদকর্মীরা হচ্ছে সমাজের দর্পণ। তিনি এসময় আরো বলেন, আমাদের বান্দরবানের সংবাদকর্মীরা অনেক ভালো। এখানকার সংবাদকর্মীরা সরকারের উন্নয়ন ও এলাকার বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আমাদের সবার সামনে সংবাদ নিয়ে আসে এবং আমরা এই সংবাদ থেকে তথ্য নিয়ে বিভিন্ন সমস্যা সমাধান ও উন্নয়ন কাজে অংশ নিই। প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এসময় আরো বলেন,প্রতিটি সংবাদকর্মীকে আরো ভালোভাবে সংবাদ প্রকাশ করতে হবে। এলাকার সমস্যার কথার পাশাপাশি পর্যটন শিল্পের বিকাশের বিভিন্ন সংবাদ সুন্দরভাবে তাদের লেখনির মাধ্যমে পাঠকদের জানাতে হবে।

অনুষ্টানের শুরুতেই মনোরম সংগীত পরিবশেন করে বান্দরবানের সংগীত শিল্পিরা, এরপরই প্রধান অতিথি বিশেষ অতিথিসহ আগত বিভিন্ন অতিথিদের সংগীত সন্ধ্যায় এক মনোরম পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

পরে আগত অতিথিদের সম্মানে আয়োজন করা হয় বেলুন ফুটানো প্রতিযোগিতা। এসময় অতিথিরা একে একে অংশ নেয় এবং বেলুন ফুটিয়ে নিজ নিজ ভাগ্য যাছাই করে।
পরে অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে বেলুন ফুটানো প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করা হয়। শেষে অতিথি ও সাংবাদিকদের সম্মানে আয়োজন করা হয় এক নৈশভোজ।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।