ভালুকায় ঘুষ না দেয়ায় ৪জনকে কুপিয়ে জখম

ময়মনসিংহের ভালুকার পুরুড়া গ্রামে স্থানীয় ১দালালকে পল্লী বিদুৎ স্থাপনে ১টি মিটারের জন্যে ৫০হাজার টাকা ঘুষ না দেয়ায় ১কৃষক পরিবারের বৃদ্ধাসহ ৪জনকে কুপিয়ে জখম করেছে স্থানীয় দালালরা।আহতরা ভালুকা সদর হাসপাতলে ভর্তি রয়েছে।

এ ব্যাপারে ভালুকা মডেল থানায় ১টি অভিযোগ দায়ের করায় ওই বিধবার পরিবার সদস্যদের প্রাণ নাশের হুমকিও দেয়া হচ্ছে বলে তারা জানায় ।

ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানায়,গত ১৩মে সোমবার দুপুরে,ভালুকা উপজেলার ভরাডোবার ইউনিয়নের পুরুড়া গ্রামের ময়মনসিংহ পল্লী বিদূৎ সমিতি-২ এর ১টি নতুন মিটার সংযোগ দিতে বিদূৎ অফিসের লাইনম্যান তার বাড়ীতে গেলে,ওই এলাকার মোতাহার হোসেন এর পুত্র আশরাফুল আলম (২৫)সংযোগ খরচ বাবদ ৫০হাজার টাকা দাবী করে, এতে বিধবার ছেলেরা রাজী না হলে আশরাফুল ক্ষিপ্ত হয়ে তার লোকজন নিয়ে মজিদাসহ তার পুত্রদের দা দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে গুরতর আহত করে।

অহত মজিদা(৬২),পুত্র শামীম (৩৫) রুহুল আমীন (৩০),ভালুকা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

এঘটনায় ভালুকা মডেল থানায়,একটি অভিযোগ দায়ের করলে,পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আসামী গ্রেফতারের প্রস্তুতি নিলে তাদের হাসাপাতাল থেকে বাড়ী ফিরে যেতে দিবেনা বলেও হুমকি দেয়া হচ্ছে বলেও ওই অভিযোগ পরিবারটির। 

প্রকাশ থাকেযে,বেশ কিছুদিন পূর্বে ওই এলাকায় বিদূৎ স্থাপনের সময় অভিযুক্ত আশরাফুল বিধবা মজিদা বড় ছেলে মালেকের কাছ থেকে ৫৫হাজার টাকা নেয়,পল্লী বিদূৎ কর্মকর্তাদের নাম ভাঙ্গিয়ে। নতুন করে মিটার নামানোর সময়,এখন আবার ওই পরিমান টাকা না দেয়ায় তাদের উপর এ হামলা করা হয়।

বিদূৎ সংযোগ স্থাপনের ক্ষেত্রে ঘুষ গ্রহনের বিষয়টি ময়মনসিংহ পল্লী বিদুৎ সমিতি-২ এর জেনার‌্যাল ম্যানেজার মোঃ রেজাউল করিম এর সাথে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি এই বিষয়ে কিছুই জানেননা বলে জানায়।

অভিযুক্ত আশরাফুল আলম জানায় টাকা ছারা বিদুৎ লাইন হয়না,আমি মোটা অংকের টাকা দিয়ে লাইন নিয়েছি,খরচের সমান অংশ শেয়ার দিয়ে ওই মহিলার ছেলেদের লাইন নেয়ার জন্য বলা হয়েছিল তারা তা না দিয়ে তাদের জমির উপর দিয়ে লাইনও যেতে দেয়নি ।তাই তাদের মিটার লাগাইতে বাঁধা দেয়া হয়েছে।মারামারি হয়নি তারা নিজেরাই মারামারি করে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে আমাকে ফাঁসাতে চাইছে বলে জানায় সে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।