মাদক সেবনের দায়ে

হাতীবান্ধায় ব্যাংক কর্মকর্তাসহ ৬ জনের কারাদন্ড

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় মাদক সেবনের দায়ে ২ জন সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা, ৩ জন স্কুল ও মাদ্রাসা শিক্ষকসহ ৬ জনের ৭ দিনের করে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও হাতীবান্ধার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও নুর কুতুবুল আলম এ কারাদন্ড প্রদান করেন। এর আগে রোববার মধ্য রাতে ওই উপজেলার নাওদাবাস ইউনিয়নের জোসনার বাজার এলাকা থেকে তাদের স্থানীয় জনতা আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। এ সময় পুলিশের টিআরসেলে রনজিত চন্দ্র নামে এক পথচারী গুলিবিদ্ধ হয় ও দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।

কারাদন্ড প্রাপ্তরা হলেন, রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া সোনালী ব্যাংকের ক্যাশ অফিসার রায়হানুল কবির ও হাবিবুর রহমান, একই ব্যাংকের পিয়ন শাহরিয়ার হোসেন, রংপুরের তাকিয়া শরীফ দাখিল ও আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল হাকিম, বাগপুর মাসুম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক অভিনাশ চন্দ্র ও মতি চন্দ্র রায়।

সহকারী সিনিয়র পুলিশ সুপার শহীদ সোহরাওয়ার্দী জানান, ওই এলাকায় ৮/১০ বহিরাগত যুবক মাদক সেবন করতে আসে। মাদক সেবন করে ফেরার সময় স্থানীয় জনতা তাদের আটক করে গণ ধোলাই দিতে থাকে। খবর পেয়ে হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুকসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা করেন। এ সময় স্থানীয় জনতা পুলিশের উপর হামলা চালায়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গুলি ছুড়লে ওই গুলিতে রনজিত নামে এক পথচারী আহত হয়েছে। এ সময় আজাহার হোসেন ও হারুন নামে দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। পরে মাদক সেবনকারীদের আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। সোমবার দুপুরে তাদের হাতীবান্ধার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও নুর কুতুবুল আলমের ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হলে ওই আদালত মাদক সেবনের দায়ে প্রত্যককে ৭ দিনের করে কারাদন্ড প্রদান করেন।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।